ওজন কমানোর জন্য মধুর সাথে এই 5টি রেসিপি আপনার নিয়মিত ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে

আমেরিকান কলেজ অফ নিউট্রিশনে প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়েছে যে মধু আপনার ক্ষুধা কমাতে সাহায্য করতে পারে। ঘুমানোর আগে এটির দৈনিক ব্যবহার ঘুমের প্রথম ঘন্টার মধ্যে পোড়া ক্যালোরির সংখ্যা বাড়িয়ে তুলতে পারে

আজকাল মানুষ একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য এবং জীবনধারার গুরুত্ব সম্পর্কে ভালভাবে সচেতন। অনেকেই তাদের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য অনেক বেশি পরিশ্রম করবেন। একটি সঠিক ডায়েট চার্ট এবং রুটিন ব্যায়াম শুধুমাত্র ওজন কমাতেই সাহায্য করে না বরং আপনাকে ফিট এবং সক্রিয় রাখে।

আপনি যদি আপনার ডায়েটে যোগ করার জন্য খাবারের আইটেম খুঁজছেন, তবে মধু, যা অন্যান্য আইটেমগুলির চেয়ে বেশি ক্যালোরি পোড়াতে সক্ষম, এটির একটি অংশ হওয়া উচিত। এই মিষ্টি এবং রসালো আইটেমটি ওজন কমাতে সাহায্য করে এবং সমস্ত খাবারের স্বাদ বাড়ায়। আমেরিকান কলেজ অফ নিউট্রিশনে প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়েছে যে মধু আপনার ক্ষুধা কমাতে সাহায্য করতে পারে। ঘুমানোর আগে এটির দৈনিক ব্যবহার ঘুমের প্রথম ঘন্টার মধ্যে পোড়া ক্যালোরির সংখ্যা বাড়িয়ে তুলতে পারে। এটি ভিটামিন, খনিজ এবং ভাল ফ্যাটের মতো প্রয়োজনীয় পুষ্টিতেও সমৃদ্ধ, যা ওজন কমাতে এবং ক্ষুধা কমাতে উপকারী হতে পারে।

এখানে আমরা মধু দিয়ে এমন কিছু খাবার নিয়ে এসেছি যা আপনার স্বাস্থ্যকর ডায়েটের অংশ হতে পারে:

মধু লেবু জল: এটি সবচেয়ে সাধারণ রেসিপি হতে পারে। এক গ্লাস জলে আপনাকে শুধুমাত্র কিছু মধু এবং এক টুকরো লেবু যোগ করতে হবে। প্রতিদিন সকালে এই পানীয়টি খেলে আপনি আরও চর্বি পোড়াতে সাহায্য করবে। লেবুও আপনাকে অনেকক্ষণ সতেজ রাখবে।

মধু এবং রসুন: রসুনের একটি তীক্ষ্ণ স্বাদ রয়েছে এবং এটি যেমন সেবন করা কঠিন। তবে এতে কিছু মধু যোগ করলে এটি সুস্বাদু হতে পারে। আপনি এই মিশ্রণটি গরম জলের সাথে খেতে পারেন এবং ওজন কমানো ছাড়াও অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতা পেতে পারেন।

মধু দারুচিনি জল: মধু এবং দারুচিনি উভয়ই ক্যালোরি পোড়াতে সাহায্য করে। এছাড়া দারুচিনিতে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টি-পরজীবী গুণ রয়েছে। উষ্ণ জলের সাথে উভয়ই পান করলে কোলেস্টেরলের মাত্রা এবং বিপাকের পাশাপাশি রক্তচাপ এবং ইনসুলিন সংবেদনশীলতা উন্নত হয়।

সবুজ চা এবং মধু: গ্রিন টি সাম্প্রতিক সময়ে অনেক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। কিন্তু এর তিক্ত স্বাদ আপনাকে আপনার নিয়মিত খাদ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে নাও পারে। এই স্বাস্থ্যকর পানীয়টির স্বাদ বাড়াতে আপনি এক কাপ গ্রিন টি-তে অল্প পরিমাণ মধু যোগ করতে পারেন।

দুধ এবং মধু: যদিও দুধের নিজস্ব স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে, তবে আপনার প্রতিদিনের দুধে এক চা চামচ মধু যোগ করা প্রতিটি দিক থেকে আরও কার্যকর হতে পারে। এটি আপনার বিপাকের হারকে বাড়িয়ে তুলবে, আপনাকে দীর্ঘ সময়ের জন্য পূর্ণ বোধ করবে, রক্তচাপ কমবে এবং পেটের চর্বি কমবে।

Source link

Leave a Comment