আপনার প্রতিদিনের ওয়ার্কআউট রুটিনে যোগ করার জন্য এখানে 5টি যোগ পোজ রয়েছে

প্রতিটি ভঙ্গির নিজস্ব সুবিধা রয়েছে। যদিও কিছু ভঙ্গি শুধুমাত্র আপনার মানসিক স্থিতিশীলতার উপর কাজ করে, তবে অন্যান্য ভঙ্গি রয়েছে যা আপনার নমনীয়তা, পেশী শক্তি এবং আপনার শরীরের টোনকে ইতিবাচকভাবে প্রভাবিত করে

প্রতিনিধিত্বমূলক চিত্র। আনস্প্ল্যাশ @ এরিক ব্রোলিন

যোগাসন অনুশীলন শুধুমাত্র আপনার শরীরকে সক্রিয় এবং ফিট রাখে না বরং আপনার মন ও আত্মাকে নিয়ন্ত্রণ করতেও সাহায্য করে। প্রাচীনকাল থেকেই আসন একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান ধরে রেখেছে। তারা আপনার চাপ এবং উদ্বেগ শান্ত করতে সাহায্য করে, আপনাকে শিথিল করে।

প্রতিটি ভঙ্গির নিজস্ব সুবিধা রয়েছে। যদিও কিছু ভঙ্গি শুধুমাত্র আপনার মানসিক স্থিতিশীলতার উপর কাজ করে, তবে অন্যান্য ভঙ্গি রয়েছে যা ইতিবাচকভাবে আপনার নমনীয়তা, পেশী শক্তি এবং আপনার শরীরের স্বনকে প্রভাবিত করে। কিছু লোকের কাছে, এটি কেবল প্রসারিত করার মতো মনে হতে পারে, তবে তারা প্রতিদিন সকালে বা সন্ধ্যায় বেশ কয়েকটি যোগব্যায়াম ভঙ্গি অনুশীলন করে দীর্ঘ সময়ের জন্য কিছু স্বাস্থ্য সুবিধা অর্জন করতে পারে।

এখানে আমরা কিছু সুপরিচিত যোগাসন নিয়ে আলোচনা করব যা আপনার ব্যায়ামের রুটিনের অংশ হতে পারে:

সুখাসন বা সহজ ভঙ্গি: এই ভঙ্গিটি আপনার স্টার্টার হতে পারে কারণ এটি শারীরিক মাত্রার দিগন্তের বাইরে এবং আধ্যাত্মিক আনন্দ দেয়। এটি উদ্বেগ, চাপ এবং মানসিক ক্লান্তি কমিয়ে আপনার শরীর ও মনকে সান্ত্বনা দেয়। স্পাইনাল কর্ড সোজা রেখে বিপরীত উরুর ভিতরে পা রেখে বসে এটি করা হয়। ভঙ্গিতে থাকার সময় আপনার শ্বাস-প্রশ্বাস অব্যাহত রাখা উচিত।

তাদাসন বা মাউটেন পোজ: সোজা হয়ে দাঁড়ানো এবং হাত তুলে তাদাসন আপনার হিল এবং পায়ের আঙ্গুল জোড়া দিয়ে করা যেতে পারে। এখন, আপনার পাহাড়গুলিকে 10-15 বার সংযতভাবে উপরে এবং নীচে তোলা চালিয়ে যান। এটি পায়ের ব্যথা দূর করতে, আপনার পায়ের পেশীকে শক্তিশালী করতে এবং আপনার শরীরের সারিবদ্ধতা উন্নত করতে সাহায্য করবে। শিশুদের জন্য, তাদাসন তাদের বৃদ্ধিতে উপকারী হতে পারে।

ধনুর আসন বা ধনুকের ভঙ্গি: ধনুর আসন মেরুদন্ডকে নমনীয় করে এবং শক্ততা কমানোর জন্য একটি বিখ্যাত ভঙ্গি। আপনার হাত দিয়ে আপনার পা চেপে ধরে এবং বুক যতটা সম্ভব উঁচু করে ভঙ্গি করা যেতে পারে। আপনার পেটে চাপ দিয়ে, আপনার শ্বাস নিয়ন্ত্রণ করা উচিত এবং কিছু মুহুর্তের জন্য অবস্থানে থাকা উচিত। পেটের উপর চাপ পেটের ব্যথা দূর করে এবং স্থূলতা কমাতে সাহায্য করে।

ত্রিকোণ আসন বা ত্রিভুজাকার ভঙ্গি: ত্রিকোনাসন আপনার কাঁধের প্রান্তিককরণে সাহায্য করে এবং শরীরের নমনীয়তা বাড়ায়। এটি পেলভিক অঞ্চলকে টোন করে যা গ্যাস্ট্রাইটিস, বদহজম এবং অ্যাসিডিটি নিরাময়ে সহায়তা করে। এই ভঙ্গিটি দিনে 5-6 বার চেষ্টা করলে ঘাড়ের অংশে পিঠের ব্যথা এবং শক্ততা দূর করতে উপকারী হতে পারে।

ভুজঙ্গাসন বা কোবরা স্ট্রেচ: ভুজাগাসন, যা সর্পা আসন নামেও পরিচিত, পেটের উপর শুয়ে, কাঁধের কাছে হাত রেখে এবং সোজা দেখার জন্য বুক উঁচু করে করা হয়। এটি বুককে প্রশস্ত করতে এবং মেরুদণ্ডের নমনীয়তা বাড়াতে সাহায্য করে। এটি রক্ত ​​সঞ্চালন বাড়ায় এবং শরীরে শক্তি যোগায়। এটি ফুসফুসের ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এবং হাঁপানি রোগীদের জন্য সহায়ক হতে পারে।

Source link

Leave a Comment